বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

আগামীকাল দেশের বৃহত্তম বগুড়া পৌর নির্বাচন

উৎপল মোহন্ত, বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ
উত্তরবঙ্গের রাজধানী নামে খ্যাত বগুড়া জেলা। উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার বগুড়া, সেই বগুড়াতে আগামী ২৮ শে ফেব্রুয়ারি পৌরসভা নির্বাচন।
এই পৌরসভা ১৮৭৬ সালে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশের প্রাচীন ও বৃহত্তম পৌরসভা। আয়তনের সঙ্গে জনসংখ্যা বাড়লেও বাড়েনি নাগরিক সুবিধা ও বর্ধিত এলাকায় হয়নি কোন উন্নয়ন।
নামে ‘ক’ শ্রেণীর পৌরসভা হলেও এখানে লাগেনি উন্নয়নের ছোঁয়া খানাখন্দে ভরা রাস্তা-ঘাট, শহরের যেখানে সেখানে ময়লা-আর্বজনায় ভরা, অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা একটু বৃষ্টি হলেই জলাশয়ে পরিণত হয় শহর, যানযট সহ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত।
আর সেখানেই মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা ভোটারদের দিচ্ছেন উন্নয়নের বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি। নাগরিক সুবিধা পেতে অঙ্গীকার চাচ্ছেন ভোটাররা।
ভোটাররা বলছেন, এই সমস্যা গুলোর সমাধান সহ যিনি সবসময় মানুষের পাশে থাকবেন আমরা তাকেই ভোট দিব।
শেষ মূহুর্তের নির্বাচনী হাওয়া খুব গরম ও  প্রচারণা তুঙ্গে, প্রচার প্রচারণায় সরগরম পৌর এলাকার শহর-বন্দর, গ্রাম-মহল্লা সহ সর্বত্র। পোস্টার-ব্যনারে ছেঁয়ে গেছে পুরো বগুড়া শহর। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২ টার পর নির্বাচনী প্রচারনা বন্ধ হয়ে যায়। শেষ দিনে সকাল থেকে নিজ নিজ প্রতীক নিয়ে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করেন মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা।
এদিকে পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুলিশ, ডিবি ছারাও আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় শহরজুড়ে ১৬ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। বাড়ানো হয়েছে র‍্যাবের টহল।
নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন মোট চারজন প্রার্থী, তাদের মধ্যে বিএনপি’র রেজাউল করিম বাদশা (ধানের শীষ), ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের আবু ওবায়দুল হাসান ববি (নৌকা), স্বতন্ত্র থেকে আব্দুল মান্নান আকন্দ (জগ) ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল মতিন (হাতপাখা)।
বগুড়া পৌরসভায় সাধারণ ওয়ার্ড সংখ্যা ২১ টি ও সংরক্ষিত আসন ৭ টি। সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১৩০ জন এবং মহিলা সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন ৫০ জন।
এবারের নির্বাচনে ভোট প্রদান করবেন ২ লাখ ৭৫ হাজার ৮৭০ জন। এর মধ্য পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৪ হাজার ৯০৬ জন এবং মহিলা ভোটার হচ্ছে ১ লাখ ৪০ হাজার ৯৬৪ জন।
বগুড়া জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব আলম শাহ্ জানান, ২৮ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত ইভিএম এ ভোট গ্রহণ করা হবে। নিরাপত্তায় আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা প্রয়োজনীয় সংখ্যক কাজ করে যাবে।
এ পর্যন্ত বগুড়া পৌরসভা নির্বাচনের জন্য ১৬ প্লাটুন বিজিবি, ২১ জন ম্যাজিস্টেটের নেতৃত্বে ২১ টি মোবাইল টিম, ৫ টি স্ট্রাইকিং ফোর্স সহ প্রয়োজনীয় সংখ্যক র‍্যাব, পুলিশ, আনসার সদস্যরা নিরাপত্তার কাজ করবেন। নিরাপত্তার বিষয়ে কোন কমতি থাকবে না। ভোটররা যেন নিরাপত্তার সহিত ভোট প্রদান করতে পারেন তার সমস্ত প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।
Alert! This website content is protected!