বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

একজন  মানবিক মিলির গল্প…..

রাহাদ সুমন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ- আতিয়া আলম মিলি। বরিশাল-২ (বানারীপাড়া-উজিরপুর) আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. শাহে আলমের সহধর্মীনি। সংসদ সদস্যের স্ত্রীর পরিচয় ছাপিয়ে তিনি একজন মানবিক নারী হিসেবে সর্বমহলে সুনাম ও প্রশংসা কুড়িয়েছেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী মাদার অব হিউম্যানিটি দেশরতœ শেখ হাসিনার মানবিক গুনাবলীর সঙ্গে তার মানবিকতার অন্ত:মিল খুঁজে পাওয়া যায়। আতিয়া আলম মিলি  কোভিড-১৯ প্রাণঘাতি নভেল করোনাকালে অসহায় দুস্থ পরিবারের মাঝে খাদ্য ও পণ্য সামগ্রী বিতরণ করে, আবাসনে অগ্নিকান্ডে  ক্ষতিগ্রস্থ ১০ টি পরিবারের গৃহ নির্মাণ করে দিয়ে আবার শীতবস্ত্র নিয়ে  শীতার্তদের পাশে দাঁড়িয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এছাড়াও নানাভাবে এলাকার উন্নয়ন ও জনকল্যাণে তিনি স্বামীর সঙ্গে সতীর্থ সযযোদ্ধা। স্বামীর মতো করে সাধারণ মানুষের পাশে থাকতেই তিনি বেশি ভালোবাসেন। তাইতো এলাকায় আসলেই নিরন্তর ছুটে চলেন অসহায় মানুষের দুয়ারে দুয়ারে। ৩০ ডিসেম্বর বিকালে তিনি বানারীপাড়া সদর ইউনিয়নের জম্বদ্বীপ গ্রামে গুচ্ছগ্রামে বসবাসরত দুস্থ শীতার্ত পরিবারের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন। এছাড়াও গত কয়েকদিন ধরে তিনি পৌর শহরের ১ নং ওয়ার্ডের মুক্তিযোদ্ধা আবাসনের ৮০টি পরিবারসহ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন। এসময় আতিয়া আলম মিলি  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাদের জন্য উপহার পাঠিয়েছেন বলে বৃদ্ধদের  শরীরে কম্বল জড়িয়ে দিয়ে বলেন, মাগো- আপনারা মানবতার মা  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহবায়ক প্রভাষক ইয়াসমিন রেজা নির্মলা, বানারীপাড়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. সুজন মোল্লা, ঢাকা উত্তর সিটি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম, বানারীপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সজল চৌধুরী, ছাত্রলীগ নেতা এ আহম্মেদ সাইফুল, শ্রমিক লীগ নেতা আনোয়ার হোসেন প্রমূখ। এদিকে ১ জানুয়ারী তিনি বানারীপাড়ার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের খেজুরবাড়ি আবাসনের ১৬৫টি পরিবারে কম্বল বিতরণ করবেন। এছাড়া চলতি সপ্তাহে উজিরপুর ও বানারীপাড়া ৮টি আবাসনে বসবাসরত ৬২০টি পরিবারে তিনি নিজ হাতে শীতবস্ত্র বিতরণ করবেন বলে জানা গেছে।

Alert! This website content is protected!