বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

এমপিএলে চ্যাম্পিয়ন ময়মনসিংহ রাইডার্স

ওমর ফারুক তালুকদার, ভালুকা ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ-

ময়মনসিংহ প্রিমিয়ার লীগ এমপিএলে- চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ময়মনসিংহ রাইডার্স। ফাইনালে রাইডার্স ৮ উইকেটে হারিয়েছে ময়মনসিংহ থান্ডার্সকে। ম্যাচ শেষে চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দলের হাতে ট্রফি তুলে দেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বাবু। চ্যাম্পিয়ন ট্রফি হাতে নিয়ে উল্লাসে ফেটে পড়েন ময়মনসিংহ রাইডার্সের ক্রিকেটাররা। সার্কিট হাউজ মাঠে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামে ময়মনসিংহ থান্ডার্স। ফরহাদ রেজার ১৩ বলে ২৮ রানের সুবাধে ৯ উইকেটে ১১৬ রান করে থান্ডার্স। তিনটি করে উইকেট নেন রাইডার্সের স্পিনার আজিজুল হাকিম রনি ও পেসার স্বাধীন। জবাব দিতে নেমে ৫৫ রানের জুটিতে উড়ন্ত সুচনা করেন রাইডার্সের দুই ওপেনার উত্তম সরকার ও মনির। ২ বলের ব্যবধানে দুজন আউট হলেও সাব্বির রহমান ও আল আমিন জুনিয়র দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। সাব্বির ৩৭ ও আল আমিন ২৩ রানে অপরাজিত ছিলেন। আট বল বাকি রেখেই শিরোপা জেতে রাইডার্স। ৬ রানে তিন উইকেট নিয়ে ফাইনালে সেরা রাইডার্সের স্পিনার রনি। ময়মনসিংহ রাইডার্সের অলরাউন্ডার সাব্বির রহমান বলেন, ‘এখানে এত ভালো একটা টুর্নামেন্ট হচ্ছে আমি মনে করি প্লেয়াররা ভালো কিছু শিখতে পারছে। এরকম টুর্নামেন্ট প্রতিবছর হওয়াটা খুব দরকার কারণ এখানে থেকে খেলোয়ার বেরিয়ে আসবে। ‘ময়মনসিংহ রাইডার্সের অধিনায়ক উত্তম সরকার বলেন, ‘আমরা টিমটা করার সময় যে’রকম পরিকল্পনা দিয়েছিলাম তারা সেভাবেই খেলেছে।’ ময়মনসিংহ থান্ডার্সের অধিনায়ক শুভাগত হোম বলেন, ‘এখানে উইকেটটা একটু সফট ছিল। আর আমরা পাওয়ার প্লে-তে সেরকম ব্যাটিং করতে পারিনি। উইকেট পড়ে গেছে বেশি। আর মাঝখানেও আমরা বেশি রান তুলতে পারিনি।’ এদিকে ট্রফি জিতে দারুন খুশি চ্যাম্পিয়ন দলের স্বত্তাধিকারিরাও। ময়মনসিংহ রাইডার্সের চেয়ারম্যান এম এ ওয়াহেদ বলেন, ‘এবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছি খুব ভাল লাগছে। আমরা গর্ব করছি যে আমাদের দলটি ভালো খেলে জিতেছে। এ ধরনের আয়োজনে বিসিবির পক্ষ থেকে সবসময় সহায়তা দেয়া হবে বলে জানান বিসিবির পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন। বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন বলেন, ‘যেখানে থেকে ভালো ভালো খেলোয়াড়রা উঠে এসেছেন তারা এই আয়োজন করেছে তার জন্য আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাই। ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে ১০০ বলের এই টুর্ণামেন্ট আয়োজন করে ময়মনসিংহ মাস্টার্স ক্রিকেট এসোসিয়েশন।

Alert! This website content is protected!