বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

চট্টগ্রাম থেকে জাহাজে করে ভাসানচরে নিয়ে যাচ্ছে রোহিঙ্গাদের

মোঃ সিরাজুল মনির ব‍্যুরো প্রধান চট্টগ্রাম 
স্হানান্তর প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে জাহাজে করে চট্টগ্রাম থেকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে রোহিঙ্গাদের। শুক্রবার সকালে চট্টগ্রামের বোট ক্লাব থেকে নৌবাহিনীর জাহাজে উঠে রোহিঙ্গাদের প্রথম দল। এই দলে রয়েছে মোট ১ হাজার ৬৪২ জন রোহিঙ্গা। মোট আটটি জাহাজে করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তাদের।

নৌবাহিনীর লেফটন্যন্ট কমান্ডার এম কে জেড শামীম  জানান, তিনটি ঘাট থেকে যাচ্ছে রোহিঙ্গারা। বোট ক্লাব জেটি থেকে তিনটি, আরআরবি জেটি থেকে দু’টি ও কোস্টগার্ড জেটি থেকে সেনাবাহিনীর একটি জাহাজ করে তাদের নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এছাড়া দুটি জাহাজে করে মালামাল নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

এর আগে বৃহস্পতিবার এই স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু হয়। এদিন ২০টি বাসে করে একদল রোহিঙ্গাকে স্থানান্তরের জন্য চট্টগ্রামে নেওয়া হয়।
জানা গেছে, পর্যায়ক্রমে ১ লাখ রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে নিয়ে যাওয়া হবে। এর মধ্যে প্রথম পর্যায়ে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার রোহিঙ্গা নেওয়া হবে সেখানে। রোহিঙ্গাদের এই দলটি থাকবে ভাসানচরের অত্যাধুনিক আবাসন প্রকল্পে।

সম্পূর্ণ নিজেদের ইচ্ছায় ভাসানচরে গিয়ে থাকতে রাজি রোহিঙ্গাদের এ দলটির মাধ্যমে আশ্রয়ণ প্রকল্প হিসেবে যাত্রা হতে যাচ্ছে ভাসানচরের।

এরই মধ্যে ভাসানচরে মজুদ রাখা হয়েছে প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী। ভাসানচরে প্রথম ধাপে যাওয়া রোহিঙ্গাদের রাখা হবে ৫ থেকে ১১ নম্বর ক্লাস্টারে। তিন মাসের মজুদ সক্ষমতার খাদ্য গুদামে প্রস্তুত ৬৬ টন খাদ্যপণ্য। তবে প্রথম দিকে রোহিঙ্গাদের রান্না করা খাবার সরবরাহ করবে বেসরকারি সংস্থাগুলো। ইতোমধ্যে ২২টি এনজিওর প্রতিনিধিরা ভাসানচরে কাজ শুরু করেছেন।

Alert! This website content is protected!