বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

ঝালকাঠি-বরিশালসহ ১০ রুটে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাস বন্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক//
ঝালকাঠি-বরিশালসহ ১০ রুটে অনির্দিষ্টকালের জন্য যাত্রীবাহী বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়ন। মাহেন্দ্রা গাড়ি চালক কর্তৃক বাস মালিককে মারধরের প্রতিবাদে বুধবার সকাল ১০টা থেকে এ রুটে বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। আকস্মিকভাবে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণায় ভোগান্তিতে পড়েছেন এ রুটে যাতায়াতকারী যাত্রীরা। তবে মারধরের ব্যাপারে থানায় কোন অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলে থানা সূত্রে জানাগেছে।
     ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন আহম্মেদ জানান, ঝালকাঠি-বরিশাল-খুলনা আঞ্চলিক মহাসড়কে থ্রিহুইলার মাহিদ্রা গাড়ি চলাচল নিষিদ্ধ করা হলেও সুযোগ পেলেই জেলার বিভিন্ন সড়কে এ গাড়িগুলো চলাচল করছে। মালিক সমিতি বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়েও তাদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না।
    বুধবার সকাল ৯টার দিকে ঝালকাঠি সদর উপজেলার ছত্রকান্দা এলাকায় বাস মালিক গোলাম রসুল আঞ্চলিক মহাসড়কে মাহিন্দ্রা গাড়ি চলাচলে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মাহিন্দ্রা চালকরা তাকে মারধর করে। এ ঘটনার প্রতিবাদে ঝালকাঠি বাসটার্মিনালে মালিক সমিতি ও শ্রমিক ইউনিয়নের জরুরী সভা অনুষ্ঠিত হয়।
  সভায় প্রশাসনের কাছে আঞ্চলিক মহাসড়কে মাহিন্দ্রা গাড়ি বন্ধের দাবি জানিয়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য ঝালকাঠি-বরিশাল, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, পাথরঘাটা, ভান্ডারিয়া, কাউখালী, মঠবাড়িয়া ও আমুয়াসহ ১০ রুটে বাস চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হয়। ফলে দুর্ভোগে পড়েছেন এ রুটে যাতায়াতকারী হাজারো যাত্রী।
  তবে মাহিদ্রা গাড়ির চালকদের অভিযোগ সরকারের কোন আইন বা নির্দেশনা না থাকলেও ঝালকাঠি বাস ও মিনিবাস মালিক সমিতির পরিচয়ে মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে চেকপোষ্ট বসিয়ে মাহিদ্রা আটকে টাকাপয়সা হাতিয়ে নেয়া, নির্দৃষ্ট অংকের চাদা দাবী ও মারধর নিত্যনৈমত্যিক ব্যাপার হয়ে দাড়িয়েছে। গত একমাসে কমপক্ষে ২০জন মাহিদ্রা চালককে আটকে স্বর্বস্ব হাতিয়ে নেয়া ও মাধরের ঘটনা ঘটলে তানা পুলিশও তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা।
Alert! This website content is protected!