বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

” ডিজিটালাইজেশন দেশে বিপ্লব ঘটিয়েছে “-ফেনী জেলা প্রশাসক

মোঃ ওমর ফারুক, ফেনী প্রতিনিধিঃ ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের মাধ্যমে দেশে বিপ্লব ঘটিয়েছে সরকার বলে মন্তব্য করেছেন ফেনী জেলা প্রশাসক মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান।

তিনি বলেন – ডিজিটাল বাংলাদেশের প্রবর্তক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি দেশকে ডিজিটাল করায় আমরা এর সুফল ভোগ করছি। সরকারি দপ্তর সমূহ ডিজিটাল হওয়ায় হয়রানি কমেছে, সময় এবং অর্থ দুটোই সাশ্রয় হয়েছে। বিচার বিভাগ, মোবাইল ব্যাংকিং, ভূমি সেবা কার্যক্রম, বিভিন্ন প্রাইভেট ও পাবলিক পরীক্ষার ভর্তি, অনলাইনে চাকুরীর আবেদন, ডিজিটাল পদ্বতিতে পাসপোর্ট, বিভিন্ন ভাতা গ্রহন সহ ডিজিটাল পদ্বতিতে বিদ্যুৎ বিল, গ্যাস বিল ইত্যাদি কার্যক্রম চালু হওয়ায় সাধারন মানুষ ব্যাপক উপকৃত হচ্ছে। এছাডা প্রশাসনের বিভিন্ন সভা অনলাইন জুম মিটিংয়ের মাধ্যমে হচ্ছে। ডিজিটালাইজেশন দেশে এক যুগান্তকারী বিপ্লব ঘটিয়েছে।

ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস উপলক্ষে জেলা প্রশাসন এবং তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি অধিদপ্তরের যৌথ আয়োজনে জেলা প্রশাসকের সন্মেলন কক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোছাঃ সুমনী আক্তারের সভাপতিত্বে ও জেলা আইসিটি শাখার সহকারী কমিশনার উম্মে তাহমিনা মিতুর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- ফেনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বিমল কান্তি পাল, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট গোলাম জাকারিয়া, ফেনী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বি.কম, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসরীন সুলতানা সহ প্রমুখ। সভায় আইসিটি শাখার সহকারী প্রোগ্রামার রাশেদুল আলম ” ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় ১২ বছর ” শীর্ষক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন। পরে রচনা প্রতিযোগীতা ৩ জন ও প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগীতায় ৩ জন করে মোট ৬ জন বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ প্রদান করা হয়।

Alert! This website content is protected!