বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

নওগাঁর বদলগাছীতে স্কুলছাত্রী অপহরণের পর উদ্ধার,আটক একজন

নুরুজ্জামান লিটন,জেলা প্রতিনিধি,নওগাঁঃ নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলায় অপহরণের তিনমাস পর এক স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় অভিযুক্ত মিঠু হোসেনকে (২০) গ্রেফতার করা হয়েছে। ২০ ডিসেম্বর,রোববার,নওগাঁ জজ আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেফতাকৃত মিঠু বদলগাছী উপজেলার জালালপুর গ্রামের ইউনুছ আলীর ছেলে। অপহরণ মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বদলগাছী উপজেলার সন্ন্যাসতলা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ওই স্কুলছাত্রী (১৪) স্কুলে যাওয়া-আসার পথে দীর্ঘদিন ধরে যুবক মিঠু হোসেন (২০) উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। বিভিন্ন ধরনের কুপ্রস্তাবসহ প্রেমের প্রস্তাব দিতেন তিনি। স্কুলছাত্রীটি উক্ত প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলে তাকে ভয়-ভীতি দেখাতেন মিঠু। একপর্যায়ে গত ২২ সেপ্টেম্বর সকালে স্কুলছাত্রী জালালপুর চার রাস্তার মোড়ে এক দোকানে কসমেটিক্স কেনার জন্য গেলে আর ফিরে আসেনি। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজির পর স্কুলছাত্রীর পরিবার জানতে পারে মিঠুসহ কয়েকজন বাজারের তিন রাস্তার মোড় থেকে জোরপূর্বক অটোরিকশায় উঠিয়ে জয়পুরহাটের দিকে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে গত ১৭ নভেম্বর মিঠুসহ আটজনকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে বদলগাছী থানায় একটি মামলা করেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার দিবাগত রাতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) আরিফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে জয়পুরহাট সদরে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় হানিফ কাউন্টারের সামনে থেকে স্কুলছাত্রীকে উদ্ধারসহ অপহরণকারী মিঠুকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চৌধুরী জোবায়ের আহম্মেদ বলেন, স্কুলছাত্রীর বাবা মামলা করার পর থেকে অভিযুক্তকে ধরতে তৎপর থাকে পুলিশ। অবশেষে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। রোববার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

Alert! This website content is protected!