বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

নওগাঁয় আত্রাইয়ের ভ্যান চালক কিশোর সবুজকে হত্যা করে ভ্যান ছিনতাই

আব্দুল মজিদ মল্লিক, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ নওগাঁ সদর উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের গঙ্গাকান্দির পাশের মাঠ থেকে সবুজ হোসেন (১৪) নামের এক কিশোর ভ্যান চালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে আত্রাই উপজেলার সাহাগোলা ইউনিয়নের মাগুড়া পাড়া গ্রামের সাজ্জাত হোসেনের ছেলে।মঙ্গলবার ১৯শে জানুয়ারি বেলা ১২টার দিকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
নিহতের বাবা সাজ্জাত হোসেন জানান, সবুজ হোসেন সোমবার সকালে ভ্যান নিয়ে বের হয়ে সারাদিন ভ্যান চালিয়ে রাতে বাড়ি না ফিরলে তার ফোনে যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ থাকায় আমরা আশে পাশে অনেক খোঁজাখুজি করেও কোন সন্ধান পাইনি। এর পরে মঙ্গলবার জানতে পারি আমার ছেলে সবুজকে- কে বা কারা মেরে ফেলে রেখে গেছে।
তিনি বলেন, আমরা গরীব মানুষ আমাদের সাথে কারো কোন শত্রুতা নেই। তার ভ্যান গাড়িটিও পাওয়া যাচ্ছে না। আমার ধারনা কেউ ভ্যানগাড়িটি ছিনতাই করে আমার ছেলেটাকে মেরে ফেলে রেখে গেছে। চুন্ডিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেদারুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার বেলা ১২টার সময় স্থানীয় কয়েকজন গঙ্গাকান্দি মাঠের মাঝখানে একটি বাঁশঝাড়ে লাশটি দেখতে পেয়ে আমাকে জানালে আমি থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করি। এর পর পুলিশ এসে মরদেহটি উদ্ধার করে। সম্ভবত  দূরবর্তরা তার ভ্যান ছিনতাই করে তাকে হত্যা করে ফেলে রেখে ভ্যান গাড়ি নিয়ে পালিয়ে যায়।
নওগাঁ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি ) সোহরাওয়ার্দী হোসেন জানান, নিহত ওই কিশোর একজন ভ্যান চালক। রাতের কোন এক সময় তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে আমরা প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছি। এছাড়া তার চোখমুখে বেল্ড দিয়ে একাধিক আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এবিষয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলেও জানান ওসি। নিহতের লাশ রাত ৮ টার দিকে আত্রাইয়ের মাগুড়া পাড়া গ্রামে ময়না তদন্ত শেষে দাফন করা হয়েছে।

Alert! This website content is protected!