বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

নওগাঁয় আদালত চত্বরে পুলিশের হাতে আইনজীবী লাঞ্ছিতের অভিযোগে আদালত বর্জন

নুরুজ্জামান লিটন,জেলা প্রতিনিধি নওগাঁঃ নওগাঁয় আদালত চত্বরে রিকশা নিয়ে প্রবেশের সময় পুলিশের হাতে তিন আইনজীবী লাঞ্ছিতের অভিযোগে আদালত বর্জন করেছেন আইনজীবীরা। সেইসঙ্গে অভিযুক্ত পুলিশকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বরখাস্তসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সোমবার (১ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে জেলা অ্যাডভোকেট বার অ্যাসেসিয়েশন ভবনে এক জরুরি সভা করে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আইনজীবীদের সূত্রে জানা যায়, বেলা ১১টার দিকে অ্যাডভোকেট মুরাদ হোসেন রিকশা নিয়ে আদালত চত্বরে প্রবেশ করছিলেন। এসময় আদালত চত্বরের গেটে নিরাপত্তায় নিয়োজিত দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তা তাকে রিকশা নিয়ে প্রবেশ করতে নিষেধ করেন। এতে উভয়ের মধ্যে তর্কাতর্কি শুরু হলে সেখানে অ্যাডভোকেট আব্দুর রাজ্জাক ও অ্যাডভোকেট শাহা আলম আসেন। এক পর্যায়ে পুলিশ কর্মকর্তা তাদেরকেও লাঞ্ছিত করেন বলে অভিযোগ ওঠে। ঘটনার পর আদালত চত্বর উত্তপ্ত অবস্থা বিরাজ করে। পরে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়। লাঞ্ছিতের ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তার শাস্তি চেয়ে আদালত চত্বরে বিক্ষোভ করেন আইনজীবীরা। পরে দুপুর ১২টার দিকে জেলা অ্যাডভোকেট বার অ্যাসেসিয়েশন ভবনে এক জরুরি সভা করেন আইনজীবীরা। সভায় আদালত বর্জনের সিদ্ধান্ত নেন আইনজীবীরা। সেইসঙ্গে অভিযুক্ত পুলিশ কর্মকর্তাকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে বরখাস্তসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে কঠোর কর্মসূচি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ সময় আইনজীবীরা আদালত বর্জন করায় সেবা নিতে আসা ব্যক্তিদের ফেরত যেতে হয়। নওগাঁ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, জেলা ছাত্রলীগের পক্ষে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি দেয়ার কথা ছিল। আদালত চত্বরের গেটে যেন যানজট না হয় এজন্য আগে থেকে নির্দেশনা ছিল। আদালত চত্বরে এক আইনজীবী রিকশা নিয়ে প্রবেশের সময় তর্ক হয়। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

Alert! This website content is protected!