বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

নাগরপুরে অবৈধ দখল উচ্ছেদ অভিযান 

মো তোফাজ্জল হোসেন তুহিন,  নাগরপুর(টাঙ্গাইল)প্রতিনিধিঃ 
টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধুবড়িয়ার ভূমি অফিসের জমি দখল মুক্ত করা হয়েছে। বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় দিকে উপজেলার ধুবড়িয়া বাস ষ্টান্ড সংলগ্ন জমি জেলা প্রশাসকের নিদের্শে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ অভিযান পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর।
ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ধুবড়িয়া ইউনিয়নের সেন মাইজাইল মোজায় ১নং খাস খতিয়ান , দাগ নং ২৫২ , জমির পরিমান ০.০০৭ একক, যাহার কেস নং ১৭/২০২০-২১, কেস নং ১৮/২০২০-২১, জমির পরিমান ০.০০২ একক, কেস নং ১৯/২০২০-২১, জমির পরিমান ০.০১৩৪ একক । জমিতে অবৈধ ভাবে দোকান পাঠ উত্তেলন করে ব্যবসা করে আসছে ওই ইউনিয়নের মৃতু ইলিয়াস উদ্দিন আহাম্মেদের ছেলে মো. মিনজু মিয়া, নূরুল ইসলামের স্ত্রী সাজেদা বেগম ও তার ছেলে মোতাহারুল ইসলাম। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে উপজেলার ধুবড়িয়া বাস ষ্টান্ড সংলগ্ন জমি জেলা প্রশাসকের নির্দেশে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এ উচ্ছেদ কাজ সম্পুর্ণ  করা হয়।
সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর বলেন, বিগত ২ সেপ্টেম্বর তারিখে আমাদের তৎকালিনী জেলা প্রশাসক অতিরিক্ত রাজস্ব স্যার এখানে উচ্ছেদ নোটিশ জারি করে ছিলেন। আমাদের সরকারী ১নং খাস খতিয়ানের জাগায় এখানে অবৈধ ভাবে যেহতু  দোকান পাঠ আছে। আমরা এটাকে  ইতিপূর্বে নথিসিজন করে ইউএনও মধ্যেমে ডিসি অফিসে আমরা পাঠিয়ে ছিলাম। তৎকালিনী এডিসি রেভিনিউ স্যার আমাদেরকে উচ্ছেদের নোটিশ দিয়ে ছিলেন। আমরা যাতে জারি করি। তামিল প্রতিবেদন পাবো মোট তিন জনের স্থাপনা আছে। প্রত্যেকটি নোটিশ জারি করা হয়েছে। নোটিশ করার পরও  তারা তামিল করে নাই। তারা সরকারের আদেশের অমান্য করে। গত ১৫ ডিসেম্বর আমাকে  এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন অবৈধ স্থাপনা  উচ্ছেদ করার জন্য। উদ্ধারকৃত জায়গায় বাঁশের বেষ্টনী দেয়া হয়েছে।
Alert! This website content is protected!