বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

নৌকায় ভোট দিলে উন্নয়ন হয়, সাংসদ আয়েন

সুমন শান্ত,মোহনপুরঃ
রাজশাহীর মোহনপুরে  মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র ও সাকোঁয়া বাকশৈল কামিল মাদরাসার একাডেমী ভবনের ভিত্তি স্থাপন করা হয়েছে।
রবিবার বেলা ১২ টায় সাঁকোয়া বাকশৈল কামিল মাদরাসা চত্তরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে মডেল মসজিদ ও মাদরাসার একাডেমী ভবনের ভিত্তি স্থাপন করেন রাজশাহী ৫৪,পবা-মোহনপুর-৩ আসনের  আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিন প্রধান অতিথি বক্তব্য প্রদানে বলেন শেখ হাসিনার দক্ষ নেতত্বে বাংলাদেশ আজকে উন্নত, সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে সারাবিশ্বে পরিচিতি পেয়েছে। তাই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে আগামী  ৩০ শে ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত কেশরহাট পৌরসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত আওয়ামী লীগ প্রার্থী শহিদুজ্জামান শহিদকে নৌকায় ভোট দিন। আপনারা নৌকায় ভোট দিলে  কেশরহাট পৌরসভার উন্নয়ন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এটি প্রথম শ্রেণির পৌরসভায় উন্নীত হবে।তিনি আরো  বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাছে জনগনকে চাইতে হয় না আওয়ামী লীগ জানে মানুষের কীভাবে উন্নয়ন করতে হবে।  কেশরহাট পৌর নির্বাচনে আপনারা যদি নৌকা মার্কায় ভোট দেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী জয় হয় তাহলে পৌর এলাকার নগরের মতো উন্নয়ন করে দেবো। নগরের মতো সুবিধা পাবেন।নৌকায় ভোট দিয়ে আপনাদের সেবা করার সুযোগ দেবেন কী না হাত তুলে দেখান।এসময় জনসভায় উপস্থিত কেশরহাট পৌরবাসী দুই হাত তুলে সাংসদ আয়েন উদ্দিন  ও নৌকার মনোনিত প্রার্থী শহিদুজ্জামান শহিদ প্রতি তাদের সমর্থন জানান।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা উন্নয়নশীল দেশ, কারো কাছে ভিক্ষা করে চলবো না। জাতির পিতা বলেছিলেন, সাড়ে সাত কোটি মানুষকে কেউ দাবায় রাখতে পারবা না। আমরা এগিয়ে যাচ্ছি, এগিয়ে যাবো। বাংলাদেশকে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারে নাই, দাবিয়ে রাখতে পারবে না। জাতির পিতার স্বপ্ন আমরা পূরণ করবো। বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, এরা দেশকে ধ্বংস করতে জানে, দেশকে কিছু দিতে জানে না। এতিমের টাকা মেরে খায়। ‘সৌদি অর্থায়ন এবং প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে দেশের সব জেলা ও উপজেলায় একটি করে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মিত হচ্ছে। সব মসজিদের  নকশা ও ডিজাইন একই রকম। এতে দেশের মুসলিম ঐতিহ্য আরও সমৃদ্ধ হবে এবং দৃষ্টিনন্দন স্থানে পরিণত হবে। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম, যুগ্ম সম্পাদক পৌর মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ, অধ্যক্ষ আব্দুল কাদের, উপধাক্ষ্য আবুল কালাম আজাদ,সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদ বিন কাশেম, সাবেক জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলফোর রহমান, জেলা পরিষদ সদস্য শফিকুল ইসলাম,মাসুদ আহম্মেদ রানা,পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শাহেদুজ্জামান মুক্তাসহ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এই মসজিদে ইমাম প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, গণশিক্ষাকেন্দ্র, মৃত ব্যক্তির গোসল করানোর স্থান, ইসলামিক চর্চাকেন্দ্র, মহিলা ও পুরুষের পৃথক নামাজের স্থান সহ নানা সুবিধা থাকবে।
এটি নির্মাণে ব্যয় হবে ১২ কোটি, মাদরাসা ভবন নিমানে ৮৮ লক্ষ টাকা । গণপূর্ত বিভাগ নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করবে।
Alert! This website content is protected!