বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

পাঁচ তারকা হোটেল বন্ধ না হলে কঠোর অবস্থানে যাওয়া হুশিয়ারি

আকাশ মার্মা মংসিং বান্দরবানঃ 
বান্দরবান থানছি উপজেলায় ‘পাঁচ তারকা হোটেল নয়, পাহাড়ে শিক্ষা ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়ন চাই” এই স্লোগানকে সামনে রেখে চিম্বুকে নাইতং পাহাড়ে কাপ্রু ও ডলা পাড়া ম্রোদের ভোগদখলীয় ভূমিতে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মান প্রতিবাদে থানছি উপজেলায় সচেতন ছাত্র সমাজ ও নাগরিক বৃন্দ মানববন্ধন  অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ ৭  ডিসেম্বর সোমবার সকালে  থানছি বাজার হতে  থানছি বাসষ্ট্যান্ড পর্যন্ত সম্মেলন শেষ হয়,পরে থানছি বাজারে সামনে ফেস্টুন ও ব্যনার দিয়ে শতাধিক ছাত্র এ নাগরিক বৃন্দ এই মানববন্ধনে যোগ দান করেন।
মানববন্ধনে উপস্তিত ছিলেন, থানছি সচেতন ছাত্র সমাজের পক্ষে মংমে মারমা, থানছি সচেতন ছাত্র সমাজের পক্ষে মানয়া ম্রো, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র ঞুইকুম ম্রো, ময়মনসিংহ কলেজে ছাত্র রিংতুই ম্রো, গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরাও ম্রো, ওছাত্র সংগঠনে সভাপতি সিনিয়া ম্রো সহ প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সিকদার গ্রূপের এই হোটেল নাইতং পাহাড়ে নির্মিত হলে প্রত্যক্ষ ভাবে ম্রোদের চারটি পাড়া এবং পরোক্ষভাবে ৭০-১১৬টি পাড়া ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলেও উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বলেন, পাঁচ তারকা এই হোটেল নির্মান হলে ম্রোদের সংস্কৃতি জীবনযাত্রা ও পরিবেশ পড়বে বিপর্যয়ের মুখে। এখানে পাঁচ তারকা হোটেল নির্মান নয় শিক্ষা জন্য হাত বাড়ান।
আরো বক্তব্য বলেন, আমরা পাহাড়ে বসবাস করি, না আছে শিক্ষা না আছে ভাল একটি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান, পাহাড়ে আমাদের জন্ম, মরলে পাহাড়ে মরব কোন পাঁচ তারকা হোটেল নয়। আমরা পাঁচ তারকা হোটেল চাইনাহ ,আমরা চাই পাহাড়ে শিক্ষা থেকে অবাঞ্ছিত ছেলে-মেয়েদের শিক্ষা আলো জ্বালাতে। এই দাবী না মানলে থানছি ছাত্র সমাজ ও ম্রো সম্প্রদায় কঠোর অবস্থানে যাবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারন করেন তারা।
Alert! This website content is protected!