বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

পাইকগাছার লতায় চিংড়ি ঘেরের বাঁধ কর্তন সহ বাসা ভাংচুরের অভিযোগ

পাইকগাছা(খুলনা) প্রতিনিধিঃ-
 পাইকগাছায়  চিংড়ি ঘেরের বাঁধ কেটে  বাসা ভাংচুর সহ ক্ষয়-ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ১১ ফ্রেরুয়ারী রাতে এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার লতা ইউপি’র পুটিমারীতে। এ ঘটনায় পুটিমারী গ্রামের অরুন মন্ডলের ছেলে সুদিপ্ত মন্ডল প্রতিপক্ষ শেখ কুদ্দুস ও মেহেদী হাসান সহ অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানাগেছে।
থানায় অভিযোগের বর্ননা দিয়ে সুদিপ্ত মন্ডল জানান, পুটিমারী মৌজার এস এ খতিয়ানের ১-১৬ টি দাগে ১৫ একর সরকারী সম্পত্তি ভিপি কেস নং-৬১৬ /৭৪-৭৫ সহ পৃথক ডিসিআর মূলে ৩ ব্যক্তি ঘের করে ভোগ দখল রয়েছি। যার বিগত ৭৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত রাজস্ব দিয়ে ডিসিআর নেওয়ার পর বিদায়ী সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মুহাঃ আরাফাতুল আলম ঘটনাস্থলে পৌছিয়ে ইজারাপ্রাপ্তদের দখলনামা বুঝিয়ে দিলে আমরা দখলে রয়েছি। ডিসিআর গ্রহনের পর থেকে বাদামতলার শেখ কুদ্দুস ও মেহেদী হাসান গংদের সাথে বিরোধ দেখা দেয়। সুদিপ্ত মন্ডল অভিযোগ করেন এ বিরোধের জের ধরে শেখ কদ্দুস গংরা বৃহস্পতিবার রাতে ১৫/২০ জন বহিরাগত লোক নিয়ে লাঠি-সোটা নিয়ে ও পটকা বাজি ফুটিয়ে ত্রাস সৃষ্টি করে ঘেরের বাঁধ কেটে বাসাবাড়ী ভাংচুর করে ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে।
এ ঘটনায় সুদিপ্ত মন্ডল বাদী হয়ে শেখ কুদ্দুস, মেহেদী হাসান ও কাজী মুছার খায়রুল ইসলাম সহ অজ্ঞাত ১৫/২০ জনের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শহীদ জানান, পটকা ফুটিয়ে বাসা ভাংচুর ও ক্ষয়-ক্ষতির প্রাথমিক প্রমান মিলেছে।
Alert! This website content is protected!