বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

পাইকগাছায় বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য দেয়ায় যুবলীগনেতার বিরুদ্ধে আদালতে  মামলা

পাইকগাছা প্রতিনিধি ঃ-
পাইকগাছার কপিলমুনি মুক্ত দিবস উপলক্ষে আয়োজিত জনসভায় বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য দেয়ায় যুবলীগ নেতা আঃ রাজ্জাক রাজুর বিরুদ্ধে পাইকগাছা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২টি পৃথক মামলা হয়েছে। মামলা ২টি আমলে নিয়ে বিজ্ঞ আদালত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য থানা ও  পিবিআই-তে পাঠিয়েছে।
 মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ৯ ডিসেম্বর উপজেলার কপিলমুনি মুক্ত দিবস উপলক্ষে কপিলমুনি সহচরী বিদ্যামন্দির মাঠে জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। জনসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক। উক্ত জনসভায় মন্ত্রীর আগমনের পূর্বে বক্তব্যকালে উপজেলা যুবলীগনেতা কাশিমনগর গ্রামের মৃত গাজী রফিকুল ইসলামের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক রাজু বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারকে নিয়ে আপত্তিকর বক্তব্য প্রদান করেন। বক্তব্য কালে তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট কিছু বিপদগামী সৈনিক বঙ্গবন্ধুকে স্ব-পরিবারে হত্যা করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছে। এ বক্তব্যের প্রতিবাদে বক্তা আব্দুর রাজ্জাক রাজু’র শাস্তির দাবীতে বিক্ষোভ, প্রতিবাদ সভা ও সাংবাদিক সম্মেলন হয়েছে। এ কারণে গত ১৭ ডিসেম্বর রাজু ও ২০/২৫জন লোক নিয়ে লিটন সরদার নামে এক যুবককে মারপিট করে। এসব বিষয় নিয়ে লিটন সরদার বাদী হয়ে রাজু’র বিরুদ্ধে দন্ডবিধির ৩২৩/ ১২৩ (ক)/ ৫০০/ ৫০৬(২) ধারায় পাইকগাছা সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছে। একই ঘটনায় বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সৈয়দ সালামুল্লাহ ১২৩ (ক)/ ৫০০ ধারায় একই আদালতে আরো ১টি মামলা করেছে। মামলার আইনজীবী এ্যাড. জি.এম. আমজাদ হোসেন ও শেখ তৈয়ব হোসেন নূর বলেন, মঙ্গলবার মামলাটি আমলে নিয়ে বিজ্ঞ আদালত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পিবিআই-তে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা যুবলীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য আব্দুর রাজ্জাক রাজু বলেন, অসাবধানতা বশতঃ এ বক্তব্যটি হয়েছে।
Alert! This website content is protected!