বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

পাইকগাছায় বয়স্ক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষন;  থানায় মামলা দায়ের;আটক -১

পাইকগাছা(খুলনা) প্রতিনিধিঃ-
 পাইকগাছায় বয়স্ক প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায়  থানায় মামলা হলে থানা পুলিশ সবুর সরদার  (৬৫) নামে এক ভ্যান চালককে গ্রেপ্তার করেছেন। বুধবার ভোর রাতে উপজেলার গদাইপুরে এ ঘটনাটি ঘটেছে। ধর্ষিতা নারী খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি ইউনিট-1 এ চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
থানায় মামলার বর্ননা দিয়ে ধর্ষিতার ভগ্নিপতি হিতামপুরের বাসিন্দা মোকছেদ মোড়ল জানান,স্বামী মৃত্যুর পর মানসিক প্রতিবন্ধী শ্যালিকা ( ভিকটিম)  গদাইপুরে বাপের বাড়ীতে বসবাস করেন। প্রতিবন্ধী এ বয়স্ক নারী ১৭ ফ্রেরুয়ারী পার্শ্ববর্তী তকিয়া গ্রাম থেকে ওয়াজ মাহফিল শুনে রাত ১০ টার পর বাড়ীতে এসে বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়ে। ভোর বেলায় ঘুমন্ত অবস্থায় শ্যামনগর গ্রামের সবুর সরদার নামে এক ভ্যান চালক জোরপুর্বক ভাবে এ প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষন করে চলে যায়। ঘটনার পর অসুস্থ্য এ নারীর রক্তক্ষরণ হলে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করা হয়। অভিযোগ রয়েছে ঘটনার পর এলাকার কোন জনপ্রতিনিধি বা দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা এগিয়ে আসেনি। খবর পেয়েই থানার ওসি মোঃ এজাজ শফী ঘটনাস্থলে পৌছিয়ে ভিকটিমকে  খুলনায় পাঠানোর জন্য ব্যক্তিগত উদ্যোগে এম্ব্যুলেন্স ভাড়া সহ ভিকটিমের চিকিৎসার জন্য রক্তের ব্যবস্থা করেন। স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় ধর্ষিতার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে খুমেক হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করেন। এর পুর্বে ভিকটিম ও তার পরিবারের তথ্যমতে এসআই অনিষ মন্ডল সবুর সরদারকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে আনেন। এ ঘটনায় ভিকটিমের ভগ্নিপতি মোকছেদ মোড়ল বাদী হয়ে সবুর সরদারের বিরুদ্ধে নারী-শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেছেন,যার নং-১৮।
এ বিষয়ে মামলা তদন্ত কর্মকর্তা ইন্সপেক্টর ( অপারেশন) দিবাশীষ দাশ জানান,শুক্রবার সকালে এ মামলার আসামী সবুর সরদারকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।
Alert! This website content is protected!