বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

পাইকগাছায় ১ মাসেও সন্ধান মেলেনি কাদের গাজীর; কান্না থেমে নেই পরিবারের!

পাইকগাছা প্রতিনিধি:-
 পাইকগাছায় নিখোঁজ হবার এক মাসের মধ্যে খোজাখুজি করেও সন্ধান মেলেনি উপজেলার আলমতলা গ্রামের আব্দুল কাদের গাজী ( ৫৫)’র। সাদা-মাঠা ও সহজ সরল এ মানুষটির জন্য তার পরিবারের কান্না থেমে নেই! এমনি আত্মীয় স্বজন ও এলাকার মানুষ উদ্বেগ উৎকন্ঠায় দিন কাটাচ্ছেন আজও সে বেঁচে আছে কি নেই? নিখোজ কাদের গাজীর ছেলে সেলিম গাজী  জানান, আব্বা গত ১২ নভেম্বর ফজরের আযানের পুর্বে বাড়ী থেকে প্রায় দু’ কিলোমিটার দুরে হেতাল বুনিয়াস্থ চিংড়ি ঘেরে যাবার কথা বলে বের হয়ে পড়েন। কিন্তু দুপুরের মধ্যে সে বাড়ীতে না ফেরায় ঐ দিন কিকেল থেকে আমরা খোজাখুজি শুরু করি। পরবর্তীতে  আত্মীয় স্বজন ও গ্রামের পর -গ্রাম ঘুরেও আব্বার সন্ধান না পেয়ে থানায় জিডি করা হয় এবং লস্কর ইউনিয়ন পরিষদের ফেসবুক আইডি ” আলোর দিশারী”তে নিখোজ আঃ কাদেরের সন্ধান চেয়ে স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। সে কাদের ঋন দেনায় পড়েছিল কিনা? পারিবারিক বিরোধ বা কারোর সাথে তার শত্রুতা ছিল কিনা? এমনকি মানসিক ভাবে অসুস্থ ছিল কিনা? এমন কিছু প্রশ্ন করা হলে আব্দুল কাদেরের ছেলে সেলিম কারোর বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না করে বলেন আব্বা পরিবারে ও এলাকার মানুষের কাছে খুবই ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিল। তবে আব্বা মাঝে-মধ্যে মানুসিক ভাবে অসুস্থ্ হয়ে পড়ত। তার জন্য সে ডাঃ ইয়াসিন আলীর কাছে চিকিৎসাধীন ছিল। তবে কাদেরের নিখোঁজ হওয়ার পিছনে তার পরিবার মানুসিক ভারসাম্যহীনতার বিষয়টি অধিক গুরুত্ব দিয়ে এখনো তাকে বিভিন্ন স্থানে খুজে বেড়াচ্ছেন। তার পরিবার ছবি দেখে আব্দুল কাদের সন্ধান পেলে “আলোর দিশারী “বা ছেলে সেলিমের ব্যবহৃত ০১৭১৫-৪২৬২৯৭ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করার জন্য বিশেষ ভবে অনুরোধ করেছেন।
Alert! This website content is protected!