বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

ফেনী পৌরসভা নির্বাচন: সবকেন্দ্রই ‘ঝুঁকিপূর্ণ, ঝুঁকি এডাতে বিপুল পরিমান র‌্যাব,পুলিশ, বিজিবি ও আনসার মোতায়েন

মো: ওমর ফারুক, ফেনী প্রতিনিধি:-

আসন্ন ৩০ শে জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় ফেনী পৌরসভা নির্বাচনের ঝুঁকি এডাতে সবকটি ওয়ার্ডেই একজন করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োজিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বিপুল পরিমান পুলিশ, র‍্যাব, ও বিজিবিও মোতায়েন থাকবে। ৩০ জানুয়ারি শনিবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, পৌরসভার ১৮টি ওয়ার্ডের ৪৫টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ৯১ হাজার ৬৬২। এর মধ্যে ৪৭ হাজার ৩শ ৭ জন পুরুষ  ও  ৪৪ হাজার ৩শ ৫৫ জন নারী ভোটার রয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে আরো জানা যায়, পৌরসভার ৪৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ৮টি কেন্দ্রকে ইতিমধ্যে ‘অধিক গুরুত্বপূর্ণ’ (অধিক ঝুঁকিপূর্ণ) হিসাবে চিহ্নিত করেছে জেলা পুলিশ। বাকি ৩৭টি কেন্দ্রই ‘সাধারণ’ (ঝুঁকিপূর্ণ)। নির্বাচনে প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্রগুলোতে একজন এসআইয়ের নেতৃত্বে প্রতি কেন্দ্রে ৭ জন পুলিশ ও ৯ জন আনসার সদস্য মোতায়েন থাকবে। এবং প্রত্যেক ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে থাকবে ৪ জন পুলিশ। নির্বাচনের দিন মাঠে থাকবে পুলিশের ১৫টি মোবাইল টিম, ৮টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ৭টি টিম ও পুলিশের স্ট্যান্ডবাই টিম। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ছাড়াও মোতায়েন থাকবে ৩ প্লাটুন বিজিবি।

এদিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো: নাছির উদ্দিন পাটওয়ারী জানান, নির্বাচনে ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন ৪৫ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ২৪১ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ৪৮২ জন পোলিং অফিসার।

এদিকে নির্বাচন সামনে রেখে আজ বুধবার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও নির্বাচনী কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা করেন জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজজামান। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন  প্রার্থীগন সহ জেলা আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রধান গন। সভায় জেলা প্রশাসক ভোটকেন্দ্রের সার্বিক নিরাপত্তা সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে নির্দেশনা প্রদান করেন।

জেলা পুলিশ সুপার খন্দকার নুরুন্নবী জানান, নির্বাচনে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পযাপ্ত পরিমান পুলিশ মোতায়েন করা হবে। এছাড়া অতিরিক্ত নিরাপত্তার স্বার্থ জেলার বাইরে থেকেও অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য নিয়ে আসা হবে।

জেলা প্রশাসক মো: ওয়াহিদুজজামান  জানান, সুন্দর পরিবেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কাউকে কোনোরকম অনিয়ম করতে দেওয়া হবে না। আশা করি অবাধ সুষ্ঠ নির্বাচনে সব প্রার্থী নির্বাচনী আচারন বিধি মেনে চলবেন।

Alert! This website content is protected!