বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল

 রাঙ্গামাটি প্রতিনিধিঃ- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার নামে উগ্র মৌলবাদ ও ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি ও ভাংচুরের প্রতিবাদে রাঙ্গামাটিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে জেলা যুবলীগ এবং ছাত্রলীগ। রবিবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে রাঙ্গামাটি পৌরসভা চত্বর থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সামনে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

 

রাঙ্গামাটি জেলা যুব লীগের সভাপতি আকবর হোসেনের সভাপতিত্বে ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমার সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন, রাঙ্গামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শাউয়াল উদ্দীন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো শাহজাহান, রাঙ্গামাটি শ্রমিকলীগের সভাপতি শামসুল আলম, মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি উদয়ন বড়ুয়া, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজন প্রমুখ।

 

এ সময় সমাবেশে বক্তারা বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটা অনুভূতির নাম ভালোবাসার নাম৷ এই অনুভূতিতে আঘাত দেয়া মানে সমগ্র বাংলার মানুষের হৃদয়ে আঘাত দেয়া ৷ যে বা যারা বঙ্গবন্ধুকে অবমাননা করবে তাকে বা তাদের দাঁত ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে।

 

বক্তারা আরো বলেন, উগ্র মৌলবাদ ও ধর্মান্ধ গোষ্ঠীরা ইসলামের দোহায় দিয়ে যারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আর কোনো ব্যক্তি বা রাষ্ট্রের ঐতিহ্য-ইতিহাসকে স্মরণ করার জন্য ভাস্কর্য তৈরি করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশে কিছু উগ্র জাতীয়বাদ স্বাধীনতা বিরোধী মৌলবাদী গোষ্ঠী মূর্তি ও ভাস্কর্যের ভুল ও অবমাননাকর ব্যাখ্যা দিয়ে দেশের ধর্মপ্রাণ মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে স্বাধীনতার স্ব-পক্ষের শক্তিরা একত্রিত হয়ে তাদের মোকাবেলা করতে হবে।

 

বঙ্গবন্ধুর বাংলায় কোনো মৌলবাদী ও উগ্রবাদীর ঠাঁই হবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন। সমাবেশে থেকে অনতিবিলম্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য নির্মাণ নিয়ে অপব্যাখ্যা ও অপমাননাকর বক্তব্যদানকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে এসে দ্রুত শাস্তির দাবি করা হয়।

Alert! This website content is protected!