বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

বানারীপাড়ায় সুমন মোল্লাকে ছাত্রলীগের সভাপতি পদে পুনর্বহালের দাবি

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া(বরিশাল) প্রতিনিধি ॥
বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ইতিহাস,ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও গৌরবের সব টুকুই যার সময়ে দীপ্ততার সাথে রাজপথে উদ্ভাসিত ছিলো তিনি বরিশালের বানারীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সুমন হোসেন মোল্লা। সুমন মোল্লা  উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হবার পরে এ উপজেলায় ছাত্রলীগের অতীত অনেক ইতিহাসকে পেছনে ফেলে যখন সংগঠনকে সুসংগঠিত ও সুদৃঢ় অবস্থানে এগিয়ে নিতে শুরু করে  এখানকার সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের  আস্থার প্রতিক হয়ে উঠছিলেন। ঠিক সেই সময় স্থানীয় কুচক্রি মহলের ষড়যন্ত্রের ফাঁদে একটি মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দেয়া হয় তাকে। পরে জেলা ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের মতামতের ভিত্তিতে তাকে সাময়িকভাবে সংগঠনের সভাপতির পদ থেকে বহিস্কার করে। এরপর থেকেই উপ-মহাদেশের প্রাচীনতম সর্ববৃহৎ এই ছাত্র সংগঠনটি এ উপজেলায় অনেকটা অভিভাবকহীন হয়ে পড়ে। সংগঠনটির অতীত ঐতিহ্য ভুলুন্ঠিত হয়ে একেক জন যার যার মতো করে ছাঁয়া খুঁজতে শুরু করেন। এমনটা করতে গিয়ে বর্তমানে প্রায় ছন্নছাড়া ভাবে বৃহৎ এই ছাত্র সংগঠনটি এখানে বহুধা বিভক্ত হয়ে পড়েছে। যেমনটা ছিলোনা যখন সুমন মোল্লা অভিভাবকের ভূমিকায় থেকে দক্ষ হাতে সংগঠনিটির কার্যক্রম পরিচালনা করছিলেন তখন। উপরোক্ত মন্তব্যগুলো করেছেন বানারীপাড়া উপজেলার ছাত্রলীগ কর্মী মো. জামাল হোসেন, তিনি বরিশাল বিএম কলেজ থেকে সদ্য ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতিতে মাস্টার্স শেষ করেছেন, বানারীপাড়া ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র প্রসেনজিৎ কুন্ডু, বরিশাল বিএম কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞানে অধ্যায়নরত সুদীপ্ত কুন্ডু, বানারীপাড়া ডিগ্রী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মানবেন্দ্র সাহা, সরকারি চাখার ফজজুল হক কলেজের একাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী মো. আরিফ হোসেন, একই কলেজের একাদশ দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. মুন্না, বানারীপাড়া ডিগ্রী কলেজের একাদশ দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সাকিব ঘরামী প্রমূখ। তারা আরও বলেন সম্প্রতি বরিশাল সদর উপজেলার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আশিকুর রহমান সুজনের বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার হওয়ায় তাদের মধ্যে সুমন মোল্লাকে নিয়ে আশার আলো দেখা দিয়েছে। তাকে পুনরায় বানারীপাড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির পদে পূর্নবহাল করলে বিভক্ত হয়ে পড়া ছাত্রলীগ তাদের নিজস্ব গতিধারায় ফিরতে পারবে বলেও তৃনমূল নেতা-কর্মীরা মনে করেন।  তারা দলের বৃহত্তর স্বার্থে বরিশাল জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে সুমন মোল্লাকে স্ব-পদে বহাল করার জন্য অনুরোধ  জানিয়েছেন।

Alert! This website content is protected!