বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

বিরামপুর সীমান্তে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে  নারী ও শিশু আটক

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
বিরামপুর সীমান্ত দিয়ে বিনা পাসপোর্টে ভারতে পাচারের উদ্দেশ্যে জড়ো করা নারী-শিশুসহ ৩৬ জনকে বিজিবি আটক করে বুধবার (৯ ডিসেঃ) বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে।
মামলা সূত্রে প্রকাশ, বিরামপুর উপজেলার সীমান্তবর্তী খিয়ার মামুদপুর গ্রামস্থ সীমান্ত পিলার ২৯১/২৫ এস হতে ২৫০গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে সাহার আলী ও সোহেল রানার বসত আড়ির আঙিগনায় জড়ো করা ব্যক্তিদের ভাইগড় বিওপি’র ২০ বিজিবি
আটক করে। আটককৃতরা হলেন, নওগাঁ জেলা আত্রাই উপজেলার বাঁকা
গ্রামের বিমল, শ্রীমতি আলো, ভক্তি রাণী, নারায়ন চন্দ্র, দয়াল চন্দ্র, ববিতা রাণী, রতন সরকার, পুর্ণিমা রাণী, মিলন চন্দ্র, আলো
চন্দ্র, হৃদয় চন্দ্র, নমিতা রাণী, আদুরী রাণী, একই উপজেলার সিংসারা গ্রামের ধিরেন চন্দ্র, স্বরস্বতি, বিরেন প্রামানিক, পুর্ণিমা রাণী, নওদুলি গ্রামের জয়দেব, চাম্পা রাণী, মহাদেবপুর উপজেলার চেরাগপুর কিনার প্রামানিক, গৌরি রাণী, উৎপল চন্দ্র, কাজল রাণী, টাংগাইল বাসাইলের বনি কিশোরী
গ্রামের পলাশ চন্দ্র, আশা সরকার এবং তাদের সাথে থাকা ১১জন শিশু রয়েছে।
আটককৃতদের মধ্যে পূণিমা রাণী বলেন আমরা খুবই গরীর আর হিন্দু ধর্মে হওয়াই ভারতে গিয়ে কোন কাজ কর্ম করে খাওয়ার উদ্দেশ্যে যেতে চেয়েছিলাম। আমার স্বামী শ্রী রতন সরকার
বিরামপুরের খেয়ার মাহমুদপুরের শুকুর আলী ,সোহেল রানা ও সাহার আলীকে ১০ হাজার টাকা দিয়েছে তারা ভারতে যাবার সব ব্যবস্থা
করে দিবে। এ রকম সবার কাছ থেকে ঠাকা নিয়েছে।বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বিজিবি নারী ও শিশুসহ ৩৬ জনকে বিরামপুর থানায় সোপর্দ করেছে। পলাতক
আসামী সাহার আলী, সোহেল রানা ও শুকুরআলী সরকার এই তিন
জন নারী ও শিশু পাচারসহ অন্য কোন কোন বিষয়ে জড়িত আছে তা তদন্ত সাপেক্ষে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
Alert! This website content is protected!