বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া উপহার

এস এম মাসুদ রানা বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ
“আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে দিনাজপুরের বিরামপুরে আশ্রয়ন প্রকল্প-২ এর  আওতায় গৃহহীন ও ভূমিহীনদের জন্য ঘর নির্মাণ কাজের মান ও কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেছেন উপজেলা প্রশাসন।
ভূমিহীনদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার, ঘর নির্মাণ কার্যক্রম পরিদর্শনে করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাওসার আলী, উপজেলা জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ-সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ, খানপুর ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা জিয়াউর রহমান।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের বুচকি গ্রাম ও রতনপুর পুকুর পাড়ে গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহার ৩১১ টি ঘর নির্মাণ কাজ চলছে পুরোদমে। কিছু নির্মাণাধীন ঘরের কাজ প্রায় শেষের দিকে। দৃশ্যমান হতে শুরু করেছে নির্মাণাধীন ঘর গুলো। ফাকা জায়গায় মনোরম পরিবেশে লাল টিনের ছাউনিতে দৃশ্যমান ঘরগুলো দেখতে বেশ সুন্দর লাগছে।
পরিদর্শনকালে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাওসার আলী বলেন, মাঠ পর্যায়ে উপজেলা প্রশাসন কতৃক বাস্তবায়নাধীন এসব প্রতিটি ঘরের জন্য বরাদ্ধ দেয়া হয়েছে এক লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা। এ টাকায়, ২০ ফুট বাই ২২ ফুট প্রস্তের ২টি কক্ষ, একটি রান্না ঘর ও একটি টয়লেটসহ সামনে খোলা বারান্দা তৈরী করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর দেয়া এসব ঘরে বসবাস করার স্বপ্ন দেখছেন গৃহহীন পরিবারগুলো। অপেক্ষায় রয়েছেন, কবে উঠবে সেই ঘরে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার জানান, উপজেলায় মোট ৪১৫ টি গৃহ নির্মাণ হচ্ছে এবং চলমান নির্মাণাধীন ঘরগুলোর কাজ খুব দ্রুত শেষ করা হবে। এর মধ্যে উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের বুচকি গ্রাম ও রতনপুর পুকুর পাড়ে সরকারি জায়গায় নির্মিত হচ্ছে ৩১১ টি ঘর। এখানকার কাজ প্রায় শেষের দিকে। ঘরের কাজ সম্পন্ন হলে গৃহহীন পরিবারগুলোর মাঝে দ্রুত ঘরগুলো হস্তান্তর করা হবে।
নির্বাচিত উপকারভোগী পরিবারের কয়েকজন সদস্য তাদের সুখানুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, ‘অসহায়দের সহায় বলা হয় জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার সরকারকে। শেখ হাসিনার সরকার ভূমিহীনদের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দিচ্ছে। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও এই সরকারের উত্তোরোত্তর মঙ্গল ও সফলতা কামনা করি।’
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিস সূত্রে জানা যায়, আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় সরকারি জায়গায় উপজেলার খানপুর ইউনিয়নে ৩১১টি, বিনাইল ইউনিয়নে ৫৯ টি, দিওড় ইউনিয়নে ২৮ টি ও কাটলা ইউনিয়নে ১৭টি মোট ৪১৫টি ঘর নির্মাণ করা হচ্ছে।
Alert! This website content is protected!