বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

রুমায় জনগনে উদ্যেগে শুরু হয়ে রাস্তা নির্মাণে কাজ

আকাশ মার্মা মংসিং বান্দরবান//

বান্দরবানে রুমা  উপজেলাতে বগালেক ৭ কিলোমিটার  নামক স্থান থেকে প্রায় ৩ কিলো সড়ক নিয়ে ভোগান্তিতে ভুগছে স্থানীয় বাসিন্দারা, তবে রাস্তা নির্মাণ করে তাদের লক্ষ্যটা বলেন “নিজ দেশের নিজ উদোগ সরকার নয়”।

আজ বৃহস্পতিবার (২০ নভেম্বর) সকাল থেকে  নিজেদের উদ্যোগে ৭ কিলো হতে ভাগ্যমনি খাল পর্যন্ত সড়ক নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, বান্দরবানে রুমা  উপজেলাতে বগালেক ৭ কিলোমিটার  নামক স্থান থেকে প্রায় ৩ কিলো  পাহাড়ি পথ বেয়ে  ৬ টি গ্ৰাম বসবাস। ভাগ্যমনি পাড়া (ত্রিপুরা),ক্যম্বওবয়া পাড়া ( মারমা),উবাকই পাড়া (ম্রো),খোলাই পাড়া (খুমি),লেতং পাড়া (ম্রো),বগামুখ মারমা পাড়া (মারমা) সহ মোট ৬ টি গ্ৰাম ৪টি জাতি নিজস্ব ধর্ম ও সংস্কৃতি নিয়ে  বসবাস। প্রায় ৫০০০ অধিক নানান মানুষ বসবাস করছে। যার মধ্যে রয়েছে ত্রিপুরা, মারমা,খুমি,ম্রো জনগোষ্ঠীর। এর আগেও সরকারে প্রতিনিধিরা সড়ক নির্মাণে কথা থাকলে তা করেনি, তারা বলেন, ৭ কিলো নামক রাস্তা হইতে ভাগ্যমনি পাড়া খাল পর্যন্ত ৩ কিলো রাস্তা সরকার পদক্ষেপ নেওয়া কথা ছিল। কিন্তু জনগণ প্রতিনিধিরা না দেখা মত ভান করে থাকে। অবশেষে কোন ফলাফল আসে না। অনেক বছর ধরে কষ্টে মধ্যে বসাবাস জনগোষ্ঠীরা।

এলাকাবাসি ক্ষুন্ধ হয়ে বলেন, যদি পরিদর্শন করে দেখতে পাবেন উন্নয়ন মূলক কিছু চিত্র কত রকমের সমৃদ্ধ সম্পদ যেমন  গাছ, কলা, আদা, কমলা, ধান, হলুদ  নানান ধরনের ফল-মূল রয়েছে। গভীর বন জগল থেকে  পাথর দিয়ে আজ যা ভাগ্যমনি ত্ররিয়া হইতে বগালেক সুন্দর রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছে। ।  প্রত্যেকদিন ঐ পাড়া থেকে শত শত কলা আমদানি করছে ব্যবসায়িকরা। বতারা আরো বলেন, সারাদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে ,না খেলে কি হয়? সরকারের আশায় দিন শেষ,, নিজেদের উদ্যোগ নেওয়া খুবই জরুরি।  থেকে  ভাগ্যমনি পাড়া খাল পর্যন্ত রাস্তা নির্মানে জন্য সরকারে কাছে আবেদন জানায় এলাকাবাসি।

Alert! This website content is protected!