বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

লালপুরে লাইসেন্সবিহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টারের দুইজনের জরিমানা

মো.আশিকুর রহমান টুটুল, নাটোর প্রতিনিধিঃ-
নাটোরের লালপুরে লাইসেন্সবিহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনা করায় ও ডিগ্রী না থাকা সত্তেও নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দেয়ায় মোস্তাফিজুর রহমান (৩৬) নামে একজনকে দুই বছরের কারাদন্ড ও ২ লাখ টাকা জরিমানা এবং আলমগীর কবির (২৬) নামে অপর একজনকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
শুক্রবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার গোসাইপুর গ্রামে লাইসেন্সবিহীন ওয়ান ল্যাব ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড চেম্বার এ অভিযান পরিচালনা করে জরিমানা ও কারাদন্ড আদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাম্মী আক্তার।
দন্ডপ্রপ্ত মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলার কামারহাটি গ্রামের মৃত তাছেন আলীর ছেলে এবং আলমগীর কবির সাইলকোনা গ্রামের আব্দুল করিমের ছেলে।
সিপিসি-২, নাটোর র‌্যাব ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার এএসপি মোঃ মাসুদ রানা জানান, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল দুপুরে  উপজেলার ওয়ান ল্যাব ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড চেম্বার এ অভিযান পরিচালনা করে। এসময় লাইসেন্সবিহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড চেম্বার স্থাপন করে কোনরূপ ডিগ্রী না থাকা সত্তেও নিজেকে ডাক্তার পরিচয়ে  বে-আইনি ভাবে সেবা গ্রহিতার জীবন বা নিরাপত্তা বিপন্নকারী কার্য করিবার অপরাধে মোস্তাফিজুর রহমান  (৩৬) ও  আলমগীর কবির  (২৬) কে আটক করা হয়।
পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শাম্মী আক্তার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে মোস্তাফিজুর রহমান কে দুই বছর বিনাশ্রম কারাদন্ড ও দুই লক্ষ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন এবং আপরজন আলমগীর কবির কে ত্রিশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। এসময় লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক  ডাঃ সুরুজ্জামান শামীম, বিসিএস (স্বাস্থ্য) উপস্থিত ছিলেন।

Alert! This website content is protected!