বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

লালমোহনে সন্ত্রাসী হামলা, প্রাইমারি শিক্ষকের ডান কান কেটে নিল সন্ত্রাসীরা

মোঃ শাকিল হোসেন,ভোালা প্রতিনিধি//
ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের কাজিরাবাদ গ্রামের জমির উদ্দিন হাজী বাড়িতে জমি সংক্রান্ত পূর্ব সত্রুতার জেড় ধরে প্রাইমারি শিক্ষক নুরুন্নবী’র ডান কান কেঁটে ফেলে ঘাতকরা। ষাটদরুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যায়ের সহকারী শিক্ষক নুরুন্নবী।  নুরন্নবী জানায়, বিবাদীদের সাথে দীর্ঘদিন যাবৎ জায়গা জমি নিয়া মামলা মোকদ্দমা ও বিরোধ চলিয়া আসিতেছে। এই পর্যন্ত অনেক বার শালিস ফয়সালা হলেও বিবাদীগন ক্ষমতার দাপটে কোন ফয়সালা মানিতেছে না।
স্থানীয়রা জানায় ঘটনার দিন ২৮/১১/২০২০ইং তারিখ রোজ: শনিবার সকাল আনুমানিক ১০.০০ ঘটিকার সময় জমির উদ্দিন হাজী বাড়ি নুরুন্নবীর বসত বাড়িতে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ঘাতক ১। আমির হোসেন (৫৫) ২। মোঃ বারেক (৬০) ২। আব্দুল (৫০), পিতা- মজিবল হক ৩। শুওকত (২৫) ৪। আঃ মন্নান (৩৫), পিতা- আমির হোসেন ৫। শাহিদা বেগম (৫০), জং- আমির হোসেন অজ্ঞাত আরো ২-৩ জন লোক ঘর থেকে দা, চেনী, লোহার রড ইত্যাদি দাড়ালো অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে নুরুন্নবীদের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। ১নং আমির হোসেন পিছন থেকে দাড়ালো দা দিয়ে আঘাত করে নুরুন্নবীর ডান কান কেটে ফেলে। পরে স্থানীয় লোকজন তাহাকে উদ্ধার করিয়া লালমোহন সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তরত ডাক্তার  তাহাকে ভোলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। ভোলা সদর হাসপাতাল থেকে তাকে বরিশাল শেরে-ই বাংলা মেডিকেল হাসপাতালে রেফার করে।

Alert! This website content is protected!