বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

শাহজাদপুরের সদামারা গ্রামে সংঘর্ষের ঘটনায় মামলা: বাদীপক্ষকে গৃহবন্দীর অভিযোগ

মোঃ আজাদুল ইসলাম, সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের রুপবাটি ইউনিয়নের সদামারা গ্রামে সম্প্রতি দুপক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় ঠান্ডু প্রামাণিককে প্রধান আসামী করে মোট ২৪ জনের বিরুদ্ধে শাহজাদপুর থানায় মামলা করেছে মোল্লা গ্রুপের শফিকুল ইসলাম।মামলা করার পর থেকেই মোল্লা গ্রুপের লোকজনকে গৃহবন্দী করে রেখেছে ঠান্ডু প্রামানিকের লোকজন।
সরে জমিনে ঘুরে বুধবার সকালে জানা যায়, সংঘর্ষের ২ সপ্তাহ পেড়িয়ে গেলেও আতঙ্ক উৎকন্ঠা কাটেনি সাধারণ মানুষ ও মোল্লা গোষ্ঠীর মধ্যে।
মোল্লা গ্রুপের হাজী হোসেন মোল্লা জানান, প্রামানিক গ্রুপ দুধর্ষ। তাদের হাতে ২০০৬ সালে তার সন্তান সাদ্দাম হোসেন (১৬) নির্মমভাবে নিহত হয়। আবারও পুনরায় রক্তপিপাসু হয়ে উঠেছে ঠান্ডু গংরা। তাই সম্প্রতি আমাদের উপর হামলা করে বেশ কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠিয়েছে।
শাহজাহান মোল্লা জানান, আসামী পক্ষ তাদের গৃহবন্দী করে রেখেছে। জমি ও মাঠে কাজ করতে দিচ্ছেনা। হাট- বাজারে কেনাকাটা করতে দিচ্ছেনা।
আশরাফ আলীর স্ত্রী নাজতারা জানান, গত মঙ্গলবার সকালে করশালিকা থেকে ফেরার পথে তাকে ও তার স্বামীকে পথরোধ করে কাচি দিয়ে জবাই করার হুমকির পর থাপর মারে প্রামানিক গ্রুপের লোকজন।
মামলার বাদী শফিকুল ইসলাম জানান, মামলা করার পর থেকেই পুলিশ আনতে দিচ্ছেনা বরং আসামী ঠান্ডু ও তার লোকজন মামলা তুলে নেয়ার হুমকী দিচ্ছে। পুলিশ গ্রামে আসলে কিম্বা আসামীদের আটক করলে বাদীপক্ষকে গ্রামছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে। এমনকি বাড়ী ঘর লুটতারাজ করার হুমকি দিচ্ছে। এমতবস্থায় বাদীপক্ষ আতংকিত হয়ে পরেছে। গৃহবন্দী থেকে বাঁচতে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করছে।
Alert! This website content is protected!