বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

শিশু স্বাধীন হত্যার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

উৎপল মোহন্ত, বগুড়া জেলা প্রতিনিধিঃ 
বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার কিচক ইউনিয়নের বেলতলী হাফেজিয়া (আবাসিক বিভাগ) মাদ্রাসার ছাত্র স্বাধীন হত্যার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী পরিবার ও এলাকার জনগণ। উপজেলার আমতলী বন্দরে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আজ বৃহস্পতিবার ১১.৩০ টায় এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১.৩০ থেকে ১২.৩০ পর্যন্ত অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা এ হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনায় জড়িত আসামিদের গ্রেপ্তার ও তাঁদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। মানববন্ধনে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অনেক শিক্ষক-শিক্ষার্থী, বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও এলাবাসী অংশগ্রহণ করেন
মামলা সুত্রে জানা যায়, রবিবার ১৭ জানুয়ারী বেলা সাড়ে ১১ টায় উপজেলার কিচক বেলতলি হাফেজিয়া মাদ্রাসার টয়লেটের পাশ থেকে ৮ বছর বয়সী স্বাধীন শেখ নামে হেফজ বিভাগের এক মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত স্বাধীন উপজেলার আমতলী (মাঝপাড়া) গ্রামের সুপারি ব্যবসায়ী আলম মিয়ার ছেলে।
শনিবার বিকেল থেকেই স্বাধীন নিখোঁজ ছিল। মাদ্রারাসর শিক্ষকরাও কোন সদুত্তর দিতে পারেন না। শনিবার বিকেল থেকে স্বাধীন নিখোঁজ থাকলেও মাদ্রাসার দায়িত্বপ্রাপ্ত আবাসিক শিক্ষক এর কোন তোয়াক্কা করেননি। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শিশু টিকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে ।
স্বাধীন শেখ এর পিতামাতার দাবী যে তাদের সন্তানকে হত্যা করা হয়েছে এবং এই হত্যা কান্ড ধামাচাপা দিতে ষড়যন্ত্র করছে একদল কুচক্রী মহল।
তাই নিহতের পরিবারের লোকজন ও এলাকাবাসী প্রশাসনের হস্তক্ষেপে  সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবিতে এ মানববন্ধন করেন।
নিহত স্বাধীনের বাবা আলম মিয়া বলেন, মাননীয়  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আকুল আবেদন আমার শিশু সন্তান হত্যার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচার চাই।
উক্ত মানববন্ধনে এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচার চেয়ে বক্তব্য রাখেন শিবগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি শহীদুল ইসলাম শহীদ, যুবলীগ নেতা শেখ কবির বকুল, মিজানুর রহমান মজনু, ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি বকুল মিয়া, সাঃ সম্পাদক আহম্মদ শেখ, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা দুলাল প্রধান, হাকিম, মানিক,রিংকু, পেসকার সহ প্রমুখ।
Alert! This website content is protected!