বি.দ্রঃদৈনিক নতুন ভাবনাপত্রিকায় প্রকাশিত সকল লেখার দায়ভার সম্পূর্ন লেখকের/প্রতিনিধির।আমরা লেখক প্রতিনিধির চিন্তা ও মতামতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।প্রকাশিত লেখার সাথে মাধ্যমটির সম্পাদকীয় নীতির মিল সবসময় নাও থাকতে পারে।তাই যে কোনো লেখার জন্য অত্র পত্রিকার কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

তাজা খবর

স্বরুপকাঠির নগর পিতার লড়াইয়ে আওয়ামী লীগ বিএনপির গলার কাঁটা বিদ্রোহী প্রার্থীরা….

রাহাদ সুমন,বানারীপাড়া(বরিশাল)প্রতিনিধি॥ পিরোজপুরের স্বরুপকাঠি পৌরসভায় ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে মেয়র,কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা পৌষের হাড় কাঁপানো কনকনে শীতকে উপেক্ষা ও  রাত-দিন একাকার করে গণসংযোগ,পথসভা ও উঠানবৈঠকসহ নানা প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ গোলাম কবির।  বিএনপির ধানের শীষ প্রতিকের মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক মেয়র ও উপজেলা বিএনপির আহবায়ক মোঃ শফিকুল ইসলাম ফরিদ। দলীয় মনোনয়ন পেলেও স্বস্তিতে নেই তারা। তাদের গলার কাঁটা হয়ে দাড়িয়েছেন বিদ্রোহী প্রার্থীরা। স্বতন্ত্র ব্যানারে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন উপজেলা যুবলীগের সভাপতি শিশির কর্মকার। আর পৌর বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক ও স্বরুপকাঠি সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম আজাদ হয়েছেন বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী। ফলে শুধু আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মেয়র প্রার্থীরাই নয় বিপাকে রয়েছেন দলের নেতা-কর্মী ও সমর্থকরাও। এদিকে  উভয় দলের পদধারী একাধিক প্রার্থী থাকার সুবিধা নিতে মরিয়া হয়ে  প্রচার-প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন জাতীয় পার্টি এরশাদের লাঙ্গল প্রতিকের প্রার্থী উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মোঃ নুরুল ইসলাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর  ব্যানারে অপর প্রার্থী সহকারী অধ্যাপক মোঃ মাহমুদুর রহমান। তিনিও আওয়ামী লীগ ঘরোনার বলে জানা গেছে। নির্বাচন অবাধ,সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে হলে এবং শেষ পর্যন্ত সবাই লড়াই চালিয়ে গেলে এখানে ষষ্ঠমুখী লড়াই হওয়ার আভাস পাওয়া গেছে। ৩০ জানুয়ারী অনুষ্ঠেয় স্বরূপকাঠি পৌরসভা নির্বাচনে মোট ১৪ হাজার ৯২১জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

Alert! This website content is protected!